Goodman Travels

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নাঈম আহমেদ কে চেয়ারম্যান হিসেবে চায় ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নবাসী

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ-আগামী ২০২১ সালের মার্চ মাস থেকে সারাদেশে দফায় দফায় অনুষ্ঠিত হবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন। এরই মধ্যে পছন্দের জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করার লক্ষ্যে কাজ শুরু করেছে সাধারণ ভোটাররা। আসন্ন ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন নির্বাচনকে সামনে রেখে জনসাধারণের চাওয়া একজন দক্ষ, শিক্ষিত, মেধাবী, আওয়ামী পরিবারের সন্তান ও সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিই হবে এবারের ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। সেক্ষেত্রে ইউনিয়নবাসীর প্রথম পছন্দ বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও উদোক্তা তরুন আওয়ামীলীগ নেতা নাঈম আহমেদ।
ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা পর্যবেক্ষন করে অনেক সাধারন ভোটারের সাথে কথা বলে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

ইউনিয়নবাসীর দাবি, এমন একজন জনপ্রতিনিধি যিনি সকল বিপদে তাদের পাশে থাকবেন। বৈশ্বিক মহামারি করোনা পরিস্থিতিতে বিশিষ্ট শিল্পপতি নাঈম আহমেদ যেভাবে মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন তা ইউনিয়নবাসীর হৃদয়ে আশার সঞ্চার করেছে।এছাড়াও মসজিদ, মাদ্রাসা সহ যেকোন ধরনের উন্নয়ন কার্যক্রমে ও সাধারণ মানুষের খারাপ সময়ে তার সহযোগিতার হাত অব্যাহত থাকে বলে জনগণ সুত্রে জানা যায়। সবমিলে মানুষের মনে চেয়ারম্যান হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন এই তরুন আওয়ামীলীগ নেতা।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও উদোক্তা নাঈম আহমেদ ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের ০৮ নং ওয়ার্ড এর বাসিন্দা। তার পিতা আবুল কাশেম ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়ন এর ০৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তিনি নিজে তৎকালীন বিএনপি জামাত জোট সরকারের সময় ০৮ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন(২০০৩-২০০৭)।এ সময় তিনি ও তার পরিবার জোট সরকারের বর্বরোচিত সন্ত্রাসী হামলার স্বীকার হয়েছেন অনেকবার। তাই এ রকম ত্যাগী, তৃণমূল আওয়ামী পরিবারের সন্তান কে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসাবে চায় ইউনিয়নের জনসাধারণ।

এ বিষয়ে নাঈম আহমেদ বলেন, একজন আওয়ামী পরিবারের সন্তান হিসেবে সব সময় চেষ্টা করি আওয়ামী প্রেমী মানুষের পাশে থাকতে এবং আগামীতে ও থাকবো ইনশাল্লাহ। তিনি বলেন, ২০০১-২০০৬ সাল পর্যন্ত জোট সরকারের বর্বরোচিত নির্যাতনের স্বীকার হয়েছি। ২০০৮, ২০১৪,২০১৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী বিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে মাননীয় সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর নেতৃত্বে সংগ্রাম করেছি অত্র এলাকার জনগণ সবকিছু অবগত। জনপ্রতিনিধি হয়ে সম্পদের পাহার গড়ার স্বপ্ন আমার নেই, আমি চাই সবাই কে সাথে নিয়ে চলতে। জনগণ চাইলে আমি অবশ্যই নির্বাচন করবো কেননা জনগনই আমার সকল প্রেরণার উৎস।